নারায়ণগঞ্জে খাল উদ্ধারে মেয়র আইভী

 

 

নারায়ণগঞ্জ সিটি কর্পোরেশনের বেদখল হয়ে যাওয়া সব খাল উদ্ধারে নেমেছেন সিটি কর্পোরেশনের মেয়র সেলিনা হায়াৎ আইভী। খাল দখলমুক্ত করে তা খনন করা হচ্ছে। একই বাধাই করে খালের সৌন্দর্য ফিরিয়ে আনা হচ্ছে। বৃহস্পতিবার শহরের ১২ নম্বর ওয়ার্ডের গঞ্জে আলী শাহ্ খালের খনন কাজ পরিদর্শন করতে গিয়ে মেয়র ডা. সেলিনা হায়াৎ আইভী বলেন, ‘আমরা পর্যায়ক্রমে সবগুলো খাল খনন ও বাঁধাই করার চেষ্টা করছি। আড়াইশ’ কোটি টাকা ব্যয়ে বাবুরাইল খাল খনন ও বাঁধাই কাজ চলছে। একইসাথে ত্রিবেনী খাল, মদনগঞ্জ খাল ও মাহমুদ নগর খাল খনন ও বাঁধাইয়ের জন্য টেন্ডার করেছি এবং কাজও চলছে।’

গঞ্জে আলী খাল প্রসঙ্গে মেয়র সেলিনা হায়াৎ আইভী বলেন, দীর্ঘদিন এই খালটি বেদখলে ছিল। পৌরসভা থাকা অবস্থায় আমি উদ্ধার করার জন্য উদ্যোগ নিয়ে একটি পাইপ ড্রেনও করে দিয়েছিলাম। তবে বিভিন্ন সময় পাইপ ড্রেনে মাটি, ময়লা জমে তা আটকে থাকতো। বর্তমানে এলাকাবাসীর দাবির প্রেক্ষিতে খালটি খননে কাজ শুরু হয়েছে।’

গত বছরের ২৪ অক্টোবর প্রতœতত্ত্ব বিভাগ, জেলা প্রশাসন ও সিটি কর্পোরেশনের সমন্বিত অভিযানে ঐতিহাসিক হাজীগঞ্জ দুর্গের চারপাশের অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ করা হয়। দুর্গের জায়গা বেদখল হতে দেবেন না উল্লেখ করে মেয়র আইভী বলেন, হাজীগঞ্জ কেল্লার জায়গা যারা বেদখল করছে তারা চরম অন্যায় করছে। আমি হাজীগঞ্জ কেল্লা সংরক্ষণ করতে চাই। এখানে মাঠ করে ফুলের বাগান করে দিতে চাই। মানুষ যেন প্রাণভরে নিশ^াস নিতে পারে। বিশুদ্ধ বাতাসের জন্য যেকোন কিছুর বিনিময়ে আমি হাজীগঞ্জ কেল্লাকে উদ্ধার করবোই।’

এ সময় উপস্থিত ছিলেন নাসিক ১২ নম্বর ওয়ার্ড কাউন্সিলর শওকত হাসেম শকু, ১১ নম্বর ওয়ার্ড কাউন্সিলর জমসের আলী ঝন্টু, ১০, ১১ ও ১২ নম্বর ওয়ার্ডের সংরক্ষিত নারী কাউন্সিলর মিনোয়ারা বেগম প্রমুখ।

মন্তব্য করুন

Your email address will not be published.