নির্বাচনের দিন রাতের আধাঁরে জয়ী হতে পারেন : ট্রাম্প

সংবাদ জমিন, অনলাইন ডেস্ক ঃঃ

আগামী ৩রা নভেম্বর যুক্তরাষ্ট্রে অনুষ্ঠেয় নির্বাচনের দিন রাতে বড় জয় পেতে পারেন রিপাবলিকান প্রেসিডেন্ট ডনাল্ড ট্রাম্প। সম্প্রতি মার্কিন টিভি চ্যানেল এইচবিও’র সংবাদ বিষয়ক তথ্যচিত্র ‘আক্সিওস অন এইচবিও’কে এমনটা জানিয়েছে ডেমোক্র্যাটিক উপাত্ত সংগ্রহ ও বিশ্লেষণকারী সংস্থা হকফিশ। সংস্থাটি জানায়,নির্বাচনের দিন প্রকাশিত ফলাফলের ভিত্তিতে ট্রাম্প বড় ব্যবধানে জয়ী প্রতীয়মান হবেন । যদিও পরবর্তীতে, সব ভোট গণনা শেষে তিনি পরাজিত হবেন। যুক্তরাষ্ট্রজুড়ে ১৭ হাজারের বেশি ভোটারের ওপর চালানো জরিপের উপাত্ত বিশ্লেষণ করে এমনটা জানিয়েছে হকফিশ।
করোনা ভাইরাস (কোভিড-১৯) মহামারির কারণে, এ বছরের প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে বেশিরভাগ মার্কিনি ডাকযোগে ভোট দেবেন বলে প্রত্যাশা করা হচ্ছে। হকফিশকে উদ্ধৃত করে আক্সিওসের এক প্রতিবেদনে বলা হয়, এক্ষেত্রে, রিপাবলিকানদের চেয়ে বিপুল সংখ্যক বেশি ডেমোক্র্যাট কেন্দ্রে না গিয়ে ডাকযোগে ভোট দেবেন। এ পদ্ধতিতে দেওয়া ভোটগুলো গণনায় কয়েকদিন থেকে সপ্তাহ পর্যন্ত দেরি হয়ে থাকে।

যার ফলে, নির্বাচনের দিন রিপাবলিকানদের ভোট বেশি গণনা হবে। হকফিশ জানায়, সেদিন গণনা হওয়া ভোটের হিসাবে, ডেমোক্র্যাটিক প্রার্থী জো বাইডেনের চেয়ে বিশাল ব্যবধানে এগিয়ে থাকবেন ট্রাম্প। যদিও সম্পূর্ণ ভোট গণনা শেষে ট্রাম্পের হারার আশঙ্কাই বেশি।

প্রসঙ্গত, নিউ ইয়র্কের সাবেক ডেমোক্র্যাটিক মেয়র ও ব্যবসায়ী মাইক্যাল ব্লুমবার্গে অর্থায়িত একটি উপাত্ত ও প্রযুক্তি বিষয়ক সংস্থা হকফিশ। সংস্থাটি ডেমোক্র্যাটিক ন্যাশনাল কমিটি ও বাইডেনপন্থি সুপার প্যাক’র জন্যও কাজ করে। সংস্থাটির প্রধান নির্বাহী কর্মী যশ মেন্ডেলসন নির্বাচনের সম্ভাব্য পরিস্থিতিকে ‘লাল মরিচীকা’ হিসেবে বর্ণনা করেছেন।

মেন্ডেলসন বলেন, আমরা একটি সতর্কতা জারি করছি। বলছি যে, এমনটা ঘটার সম্ভাবনা খুবই বেশি। নির্বাচনের দিন রাতের ফলাফলে দেখা যাবে ডনাল্ড ট্রাম্প অবিশ্বাস্য জয় লাভ করেছেন। তিনি বলেন, সকল বৈধ ভোট গণনা শেষে, চূড়ান্ত ফলাফল প্রকাশ পেতে কয়েকদিন সময় লাগবে। সেদিন দেখা যাবে, নির্বাচনের দিন যা দেখা গেছে তা ছিল ঠিক একটি মরীচিকা। প্রথমে এগিয়ে থাকা ডনাল্ড ট্রাম্প সব ভোট গণনা শেষে আর এগিয়ে থাকবেন না।

হকফিশের একটি মডেল অনুসারে, নির্বাচনের দিন রাতের মধ্যে ডাকযোগে পাঠানো ভোটের ১৫ শতাংশ গণনা শেষ হলে ৫৩৮ আসনের মধ্যে ৪০৮ আসনেই এগিয়ে থাকবেন ট্রাম্প। তবে ডাকযোগে পাঠানো ভোটের ৭৫ শতাংশ গণনা শেষে ট্রাম্পকে পেছনে ফেলে এগিয়ে যেতে পারেন বাইডেন। এই মডেল অনুসারে, সব ভোট গণনা শেষে ৩৩৪ আসনে জয়ী হবেন বাইডেন।

হকফিশের পূর্বাভাসের সমালোচনা করে ট্রাম্প শিবিরের যোগাযোগ বিষয়ক পরিচালক বলেছেন, সংবাদমাধ্যমগুলোর ভবিষ্যৎ অনুমান করার ব্যবসা থেকে বের হয়ে যাওয়া উচিৎ।
প্রসঙ্গত, যুক্তরাষ্ট্রের ৫০ রাজ্যজুড়ে ১৭ হাজার ২৬৩ জন নিবন্ধিত ভোটারের ওপর চালানো জরিপের উপাত্ত বিশ্লেষণ করে উপরোল্লিখিত অনুমান করেছে হকফিশ। তাদের অনুমান সত্য হলে, প্রাথমিক ফলাফলের পর নিজেকে বিজয়ী ঘোষণা করতে পারেন ট্রাম্প। অথবা বাইডেনের জয়কে অবৈধ দাবি করতে পারেন। এতে করে উত্তেজনা সৃষ্টি হতে পারে।

মন্তব্য করুন

Your email address will not be published.