জনতার মহানায়ক ছিলেন সৈয়দ আশরাফুল

জব্বারুল ইসলাম ঃঃ
যিনি ক্ষমতার উচ্চ পর্যায়ে থেকেও অতি সাধারণ ভাবে জীবনযাপন করতেন। অহংকার, লোভ, লালসা উনাকে ছুঁতে পারেনি।এত ক্ষমতা থাকা পরেও টাকার পাহাড় গড়েন নি। তিনি হলেন বাংলার বুলবুল অস্থায়ী রাষ্ট্রপতি শহীদ সৈয়দ নজরুল ইসলাম মহোদয়ের সুযোগ্য সন্তান , বাংলাদেশ আওয়ামীলীগ এর সাবেক সফল দুই বারের সাধারণ সম্পাদক, বীর মুক্তিযোদ্ধা সৈয়দ আশরাফুল ইসলাম।
জীবন দশায় তিনি কেমন ছিলেন? সকলের একবাক্যে উত্তর সততার প্রতীক।লিখতে গেলে লেখা শেষ হবে না।
উনি যখন প্রথমবার সাধারণ সম্পাদক নির্বাচিত হন তখন উনার কাছে এক লোক গিয়ে বলল, ভাই আপনার তো কোন পোস্টার, ফেস্টুন নেই আপনাকে নিয়ে আমি কিছু পোস্টার ফেস্টুন করতে চাই, যদি আপনি অনুমতি দেন।
প্রতি উত্তরে সৈয়দ আশরাফ বলেন,আমি পোস্টার, ফেস্টুনের রাজনীতি করি না।
অনেক বছর আগে ঢাকা আসলাম এক কাজে, তো বেশ কয়েকদিন থাকার উদ্দেশ্যে। বিভিন্ন জায়গায় ঘুরলাম তখন সৈয়দ আশরাফুল ইসলাম মহোদয় ছিলেন আওয়ামীলীগ এর সাধারণ সম্পাদক। বিভিন্ন জায়গায় ঘুরলাম। কোথাও উনার কোন ফেস্টুন নেই। তো সেদিন বের হলাম খালাত ভাইকে সাথে নিয়ে রিকশা করে বিভিন্ন জায়গায় গেলাম, কথায় কথায় ভাইকে বললাম ভাইয়া দেখছো আশরাফ সাহেব আওয়ামীলীগ এর সাধারণ সম্পাদক কিন্তু উনার কোন ফেস্টুন নেই, চিন্তা করা যায়। আমার কথা শুনে রিকশাওয়ালা বলল, উত্তর দিল মামা উনি তো আন্তর্জাতিব নেতা, খুব ভাল মানুষ।
কথাটা শুনে তৃপ্তি লাগলো আসলেই উনি আন্তর্জাতিক মানের নেতা ছিলেন নিজের থেকে কিভাবে আওয়ামীলীগকে ভাল রাখা যায় সেই চিন্তাই করতেন। সহজ, সরল ভাবে জীবন অতিবাহিত করেছেন, জনপ্রিয়তার শীর্ষে ছিলেন।
সৈয়দ আশরাফ একবার জম্মায় বুহুবার নয়। পরিশেষে আল্লাহর দরবারে প্রার্থনা থাকবে আল্লাহ আপনাকে জান্নাতুন ফেরদৌস দান করুক, আমিন।

মন্তব্য করুন

Your email address will not be published.