ফেনীর ছাগলনাইয়ায় যুবলীগ নেতা লিটনের অত্যাচারে বাড়িছাড়া একাধিক পরিবার

সংবাদ জমিন, অনলাইন ডেস্ক ঃঃ

ফেনীর ছাগলনাইয়ায় এক যুবলীগ নেতার অত্যাচারে অতিষ্ঠ একাধিক পরিবার বাড়ি ছেড়ে গেছে বলে অভিযোগ উঠেছে। উপজেলার শুভপুর ইউনিয়ন যুবলীগের সভাপতি সিরাজুল ইসলাম লিটনের বিরুদ্ধে এ অভিযোগ করা হয়েছে। তার বিরুদ্ধে অভিযোগ হলো- অন্যের জায়গা দখল করে দোকান ও বাড়ি নির্মাণ, জমি বিক্রির সম্পূর্ণ টাকা নিয়েও ক্রেতাকে জমি না দেওয়া, প্রবাসীর স্ত্রীকে উত্ত্যক্ত ও হুমকি-ধমকি প্রদান।
জানা যায়, গত ৩ অক্টোবর পাওনা টাকা চাওয়ায় সাবেক ইউনিয়ন যুবলীগের সভাপতি সেলিমকে পিটিয়ে আহত করা হয়। মহিউদ্দিন নামে এক প্রবাসী অভিযোগ করেন, লিটন ২০১৮ সালে করৈয়া বাজারে তার থেকে দোকান ভাড়া নিয়ে একটি অফিস খোলেন। দুই বছর ধরে দোকানের বিদ্যুৎ বিল পরিশোধ করেননি। ভাড়া চাইলেও হুমকি-ধমকি দেওয়া হয়। লিটনের অনৈতিক প্রস্তাব ও উত্ত্যক্তের কারণে এক প্রবাসী পরিবার এলাকা ছেড়ে উপজেলা সদরে আশ্রয় নেওয়ার অভিযোগ করে ভুক্তভোগী পরিবার। এ ছাড়া সৌদি প্রবাসী বেলাল হোসেন জানান, তিনি শুভপুরের হাজারী পুকুরে জনৈক ছুট্টি মিয়া থেকে ২ শতক জমি কেনেন। পাশে লিটনও ৩ শতক জমি কিনে বেলালের কাছে সাড়ে ১৭ লাখ টাকায় বিক্রি করেন।
এ নিয়ে ৩০০ টাকার স্ট্যাম্পে চুক্তি হয়। লিটন টাকা নিয়ে জায়গা বুঝিয়ে না দিয়ে বেলালদের মার্কেটের দোকানও দখল করে রাখেন। এ ব্যাপারে ছাগলনাইয়া থানায় লিটনের বিরুদ্ধে অভিযোগ দিয়েছেন বেলালের ভাই মোশারফ। বিরোধপূর্ণ জমিতে লিটনের নামে পল্লী বিদ্যুতের মিটার লাগিয়ে দেওয়া হয়েছে। বৈধ কাগজ ছাড়া মিটার লাগানোর বিষয়ে পল্লী বিদ্যুতের পরিদর্শক উত্তম কুমার জানান, লিটন তাকে হুমকি দিয়ে মিটার লাগাতে বাধ্য করেছেন।
অভিযোগের বিষয়ে যুবলীগ নেতা সিরাজুল ইসলাম লিটন জানান, সাবেক ইউপি সদস্য পুলিশের সোর্স। লোকজনের ক্ষতি করে বিধায় এলাকায় থাকতে পারেননি। অন্য প্রবাসী পরিবারকে চেনেন না তিনি। মার্কেটের দোকান দখলের বিষয়ে লিটন জানান, বেলালদের কাছে জায়গা বিক্রির পর রেজিস্ট্রি করে দিলে একটি দোকান তাকে দেবে বলে জানিয়ে ছিলেন তারা। তাহলে রেজিস্ট্রি ছাড়া দখলের কারণ জানতে চাইলে কোনো মন্তব্য করেননি তিনি। ছাগলনাইয়া থানার উপপরিদর্শক নাঈম উদ্দিন জানান,এলাকা- বাসীর অভিযোগের ভিত্তিতে তাকে থানায় নিয়ে দুই দিন আটকে রাখা হয়েছিল। কেউ মামলা না দেওয়ায় মুচলেকা নিয়ে তাকে ছেড়ে দেওয়া হয়।
লিটনের বিরুদ্ধে একটি অভিযোগ পাওয়ার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন ছাগলনাইয়া থানার ওসি মেজবাহ উদ্দিন আহম্মেদ। লিটনের বিষয়ে উপজেলা যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক কাজী ওমর ফারুক জানান, কয়েকজন ভুক্তভোগী লিটনের বিরুদ্ধে মৌখিক অভিযোগ দিয়েছেন। পরে বিষয়টি জেলা যুবলীগের নেতাদের জানানো হয়েছে। জেলা যুবলীগের সভাপতি দিদারুল কবির রতন জানান, তদন্ত করে অভিযোগের সত্যতা পেলে লিটনের বিরুদ্ধে সাংগঠনিক ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

মন্তব্য করুন

Your email address will not be published.

শিরোনাম