ঢাকার নবাবগঞ্জ থানায় প্রবাসীর স্ত্রী হত্যার আসামীর আত্মহত্যা

নবাবগঞ্জ (ঢাকা) প্রতিনিধি ঃঃ

ঢাকার নবাবগঞ্জের নয়নশ্রী ইউনিয়নের দেওতলা খ্রিষ্টান পল্লী থেকে উদ্ধার হওয়া রাজিয়া সুলতানা (৩০) এর হত্যাকারী মামুন মিয়া নবাবগঞ্জ থানা হাজতে মঙ্গলবার (১৩ অক্টোবর) দুপুরে নিজের পরিহিত লুঙ্গি দিয়ে গলায় ফাঁস দিয়ে মারা যাওয়ার ঘটনা ঘটেছে। এ ঘটনার পর পুলিশের উধ্বর্তন কর্তৃপক্ষ সরেজমিনে তদন্তের পর লাশটি ময়না তদন্তের জন্য ঢাকায় পাঠানো হয়। বিষয়টি নবাবগঞ্জ থানার ওসি সিরাজুল ইসলাম শেখ পিপিএম নিশ্চিত করেন।

জানা যায়, গত রবিবার (১১ অক্টোবর) সকালে উপজেলার দেওতলার ডোবার পাশে জঙ্গল থেকে অজ্ঞাত এক নারীর লাশ উদ্ধার করে পুলিশ।এরপর ওই নারীর পরিচয় মিলে। সে মুন্সিগঞ্জ জেলার শ্রীনগর থানা লস্করপুর গ্রামের এক প্রবাসীর স্ত্রী রাজিয়া সুলতানা। ভাড়ায় ইজি বাইক চালানো মামুন মিয়া রাজিয়া কে হত্যা করে লাশ গুম করতে অন্য স্থানে ফেলে আসে। নিহতের আত্বীয়-স্বজন ও এলাকাবাসী বুঝতে পেরে ঐ ইজিবাইক চালক মামুনকে আটক করে প্রথমে শ্রীনগর থানায় এবং পরে নবাবগঞ্জ থানায় হস্তান্তর করে। পুলিশের কাছে হত্যার কথা স্বীকারের পর সে আত্মহত্যার পথ বেছে নেয়।

 

 

মন্তব্য করুন

Your email address will not be published.