বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে ভিপি নূরের ছবি রিপ্লেস করে প্রচার : জড়িতদের শাস্তি দাবি

নোয়াখালী থেকে এস কে সুমন খান ঃঃ

নোয়াখালী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের(নোবিপ্রবি) ফটক দিয়ে ঢুকতেই চোখে পরবে ‘বঙ্গবন্ধু মুর‍্যাল’। ক্যাম্পাসে ঘুরতে এসে অনেকে ম্যুরালের সামনে দাঁড়িয়ে ছবি তোলেন। সম্প্রতি বঙ্গবন্ধু মুর‍্যালের দিকে স্যালুট জানিয়ে ছবি তোলে দুই শিশু। এরপর সেটি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে ভাইরাল হয়। ভাইরাল হওয়া সেই ছবিটি এডিট করে বঙ্গবন্ধুর জায়গায় ডাকসু ভিপি নূরুল হক নূরের ছবি রিপ্লেস করা হয় একটি ছবি গতকাল রাতে ‘এই ছবিটা কি আসলেই এডিট করা? ‘ লিখে ‘পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয় সংসদ’ নামের ফেসবুক গ্রুপে পোস্ট করেন মুহাম্মদ আদদ্বীন নামের একজন। এরপর বিষয়টি দ্রুত ফেসবুকে ছড়িয়ে পড়লে তীব্র নিন্দা জানায় অনেকে।

জানা যায়,  বঙ্গবন্ধুর ছবি এডিট করে নূরুর ছবি সংযুক্ত করার দুঃসাহস নিয়ে প্রশ্ন তোলেন নোবিপ্রবি শিক্ষার্থী শাহরিয়ার নাসের। গতকাল রাতে তিনি ফেসবুকে একটি পোস্ট দেন। পোস্টের ওই ছবিটিকে সমর্থন জানিয়ে কমেন্টে বঙ্গবন্ধুকে হেয় করে মন্তব্য করেন নোবিপ্রবির আইন বিভাগের শিক্ষার্থী ও ছাত্রশিবির কর্মী ফয়েজ আহমেদ। ফয়েজের ফেসবুক প্রোফাইল ঘেটে ছাত্রশিবিরের ৪১ তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীর ফ্রেম সমৃদ্ধ একটি প্রোফাইল ছবি পাওয়া যায়। বঙ্গবন্ধুকে নিয়ে শিবির কর্মীর এমন মন্তব্য মেনে নিতে পারছেন না বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা। এ ঘটনায় তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়েছেন তারা।

বঙ্গবন্ধুর ছবি এডিট করে নূরুর ছবি রিপ্লেস করার বিষয়টিকে সমর্থন করে বঙ্গবন্ধুকে হেয়কারী ফয়েজ নামের ওই শিবির কর্মীকে বহিস্কারের দাবি জানান বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনের নিকট। পাশাপাশি এ ঘটনায় জড়িয়ে সবাইকে খোঁজে বের করে উপযুক্ত শাস্তির আওতায় আনারও দাবি তাদের। এদিকে বিষয়টি নিয়ে তীব্র নিন্দা জানিয়েছে বঙ্গবন্ধু ছাত্র পরিষদ, নোবিপ্রবি শাখা। সংগঠনটির সভাপতি আব্দুল্লাহ বায়েজিদ তপু ও সাধারণ সম্পাদক মোজ্জাম্মেল হক এক প্রতিবাদলিপিতে ওই শিবির কর্মীর দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি চান।

কটূক্তিকারী ছাত্রশিবিরের ওই কর্মী নোবিপ্রবি থিয়েটারের গ্রন্থনা ও প্রকাশনা সম্পাদক ছিলেন। বঙ্গবন্ধুর ব্যাঙ্গাত্মক ছবির পোস্টে বঙ্গবন্ধুকে হেয় করে মন্তব্য ও স্বাধীনতাবিরোধী সংগঠনে জড়িত থাকার অভিযোগে তাকে আজ বুধবার এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তির মাধ্যমে স্থায়ী বহিস্কার করেছে নোবিপ্রবি থিয়েটার। ফয়েজের নিজেকে নোবিপ্রবি ডিবেটিং সোসাইটির সদস্য দাবি করলেও সে ডিবেটিং সোসাইটির সদস্য নয়। সংবাদ বিজ্ঞপ্তির মাধ্যমে এমনটাই জানিয়েছে নোবিপ্রবি ডিবেটিং সোসাইটি। এ ব্যাপারে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর অধ্যাপক ড. নেওয়াজ মোহাম্মদ বাহাদুর বলেন, বঙ্গবন্ধুর ছবি রিপ্লেস করে নূরুর ছবি দেওয়াটা অনেক বড় অন্যায় হয়েছে আমি মনে করি। সেই ছবিটিকে সমর্থন জানিয়ে মন্তব্যকারীও অন্যায় করেছে। আমরা দ্রুত সময়ের মধ্যে পদক্ষেপ নিব।

মন্তব্য করুন

Your email address will not be published.