রংপুরে আদিবাসী শিক্ষার্থী ধর্ষণের শিকার : গ্রেফতার-৩

রংপুর প্রতিনিধি ঃঃ

রংপুরের বদরগঞ্জে রুখিয়া রাউৎ (২৩) নামে ক্ষুদ্র নৃ-গোষ্ঠীর (আদিবাসী) এক শিক্ষার্থীকে ধর্ষণের পর নির্দয়ভাবে হত্যার অভিযোগ পাওয়া গেছে। গত মঙ্গলবার ভোরে রংপুরের বদরগঞ্জ-দিনাজপুরের ফুলবাড়ী আঞ্চলিক মহাসড়কের পাশে শালবাগানে হাত-পা বাঁধা অবস্থায় অজ্ঞাত হিসেবে লাশটি উদ্ধার করা হয়। সে রংপুর কারমাইকেল বিশ্ববিদ্যালয় কলেজের অনার্স ইতিহাস বিভাগের শেষ বর্ষের শিক্ষার্থী।

জানা যায়, বদরগঞ্জ উপজেলার রামনাথপুর ইউনিয়নের মিশনপাড়ার ক্ষুদ্র-নৃ গোষ্ঠির দিনেশ রাউৎ এর মেয়ে। হত্যার মূল পরিকল্পনাকারী হিসেবে আনিছুল হক, অটোচালক রাজ মিয়া ও আশিকুজ্জামানকে বুধবার (৭ অক্টোবর) ভোরে নিজ বাড়ি থেকে পুলিশ গ্রেপ্তার করেছে। ১৬৪ ধারায় স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি নেয়ার জন্য দিনাজপুর বিচারকের আদালতে নেয়া হয় তাদের। পারিবারিক সূত্রে জানা যায়, সোমবার (৫ অক্টোবর) বিকেল সাড়ে ৫টার দিকে রংপুরে যাওয়ার জন্য বাড়ি থেকে বের হন রুখিয়া। বান্ধবীদের সঙ্গে একরাত থেকে পরের দিন তার ফিরে আসার কথা ছিল। অবশেষে পার্বতীপুর উপজেলার হরিরামপুর ইউনিয়নের পাঁচপুকুরিয়ার শালবাগান থেকে অজ্ঞাত একটি লাশটি উদ্ধার করে মধ্যপাড়া পুলিশ ফাঁড়ি। পরে তার পরিচয় শনাক্ত হয়।  নৃ-গোষ্ঠীর আদিবাসী বদরগঞ্জের দীনেশ রাউৎ এর মেয়ে রুখিয়াকে একই এলাকার আনিসুলসহ বখাটেরা উত্যক্ত করত। পুলিশ জানায়, ৩ জনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। আরও কেউ জড়িত থাকলে তাদেরকেও গ্রেফতার করা হবে।

 

মন্তব্য করুন

Your email address will not be published.