সিংগাইরে চাপরাইলে শিশু হত্যা মামলার তদন্ত শুরু

অনলাইন, সংবাদ জমিন ডেস্ক ঃঃ
মানিকগঞ্জের সিংগাইরে জামির্ত্তা ইউনিয়নের চাপরাইল গ্রামের শিশু হত্যা মামলার  ২২ সেপ্টম্বর পিবিআই প্রাথমিক তদন্ত পরিচালনা করেন।মামলার তদন্ত কর্মকর্তা পিবিআইয়ের এসআই জনাব কামরুল হাসান কবরস্থান পরিদর্শন এবং এলাকার সর্বস্তরের মানুষের সাথে কথা বলে তাদের জবান বন্দি লিপিবদ্ধ করেন।এ সময় এলাকার মানুষ   সংঘটিত ঘটনা এবং দীর্ঘদিন যাবত মামলার বিবাদী ও পিতৃপরিচয়হীন শিশুটির মা মনি আক্তার(৩০). বিলকিস বেগম(৪৫), শহিদুল ইসলাম(৫০), রিপন(২৮) ও বিপ্লব(৩০) গংদের বিরুদ্ধে তাদের নানা অপকর্মের কথা তুলে ধরেন।
সূত্রমতে, গত ২১শে আগষ্ট চাপরাইল কবরস্থানে এলাকার মানুষ অজ্ঞত একটি নবজাতকের কবর দেখতে পান। এর একদিন পর ২২আগষ্ট, শুক্রবার জুমার নামাজের শেষে কবরস্থান কমিটি ও মুসুল্লীগন সরেজমিনে গিয়ে বিষয়টি নিশ্চিত হলেও লাশটি কার জানতে পারেননি। কানাঘুষার এক পর্যায়ে ঐ দিন সন্ধ্যা ৭ঃ৩০ মিনিটে বিবাদী শহিদুল ইসলামকে ব্যাপক জিজ্ঞাসাবাদ করলে লাশটি তার ভাগ্নি মনি আক্তারের সন্তান বলে প্রকাশ করেন। মনির বর্তমান স্বামী দেড় বছর  পূর্বে বিদেশ পাড়ি জমিয়েছেন এবং ঐ ঘরে তাদের দুটি সন্তান রয়েছে। জিজ্ঞাসাবাদের এক পর্যায়ে তাদের বাসায় দীর্ঘদিন যাবৎ আসা যাওয়া করা টিপু পাগলা(৬৫) নামের পীরকে বাচ্চাটির বাবা বলে দাবি করেন। কিন্তুু পরবর্তীতে পীর টিপু, শিশুটি তার ঔরসে নয় বলে দৃঢ় ভাবে সকলকে জানায়। পিতৃপরিচয়হীন নবজাতকে লুকিয়ে পুঁতে রাখার দায়ে কবরস্থান কমিটি একটি হত্যা মামলা করেন। কমিটির পক্ষ হতে বীর মুক্তিযোদ্ধা ও কবরস্থান কমিটির সহ সভাপতি আঃরশিদ মিয়া বাদী হয়ে মানিকগঞ্জ বিজ্ঞ অতিরিক্ত চীপ জুডিশিয়াল ম্যাজিষ্ট্রেট ২নং আদালতে ৩ সেপ্টেম্বর এই মামলা করেন।যার সি,আর মামলা নম্বর ৩৭০। এদিকে মনির আক্তারের বড় মামা আঃ মালেক বলেন,আমার বোন বিলকিস ও ভাই শহিদুল ইসলাম পরিবারকে দীর্ঘদিন যাবৎ বিভিন্ন অসামাজিক কার্যক্রম হতে বিরত থাকতে বললেও তারা আমার কথা শুনেনি এবং বিষয়টি নিয়ে আমি বিব্রত এবং লজ্জিত।।আমি এর সুষ্ঠ বিচারও দাবি করছি।
মামলার তদন্ত কর্মকর্তা কামরুল হাসান বলেন,মামলার প্রাথমিক তদন্ত চলছে, বিষয়টি খুবই জটিল মনে হচ্ছে। আগামীকাল সকাল ১০ঃ০০টায় ২৩ সেপ্টেম্বর বিবাদীদের নবজাতকের প্রকৃত পিতাসহ সবাইকে পিবিআইয়ের কার্যালয়ে হাজির হতে বলা হয়েছে। বিবাদী পক্ষের রিপন ও শহীদুল এ সময় জানায়,এ সব মামলা দিয়ে আমাদের কিছুই করতে পারবে না।লোকজন আছে সব ম্যানেজ হয়ে যাবে।

মন্তব্য করুন

Your email address will not be published.