তাহিরপুরে শিশুকে ৩ বার ধর্ষণ করল ৩ সন্তানের জনক

তাহিরপুর (সুনামগঞ্জ ) প্রতিনিধি ঃঃ

সুনামগঞ্জের তাহিরপুরে ৮ বছরের এক শিশু পর পর তিনবার ধর্ষণের শিকার হওয়ার অভিযোগ পাওয়া গেছে। অভিযোগের পর পরই পুলিশের একটি টিম অভিযান চালিয়ে জহুর মিয়া নামে এক ধর্ষককে গ্রেপ্তার করেছে। ধর্ষক জহুর মিয়া তিন সন্তানের জনক। সে উপজেলার বাদাঘাট ইউনিয়নের সীমান্তবর্তী দক্ষিণ পুরান লাউড়েরগড় গ্রামের হাসান আলীর ছেলে।  এ ব্যাপারে ধর্ষিত শিশুটির মা নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে তাহিরপুর  থানায় একটি মামলা দায়ের করেছেন।

পুলিশ ও ভিকটিম পরিবার সূত্রে  জানা যায়, ধর্ষক জহুর মিয়ার বাড়ির পাশেই শিশুটির বাড়ি। এর সুবাদে শিশুটিকে সুকৌশলে ভুল বুঝিয়ে পর পর তিনবার সে তার নিজ ঘরে নিয়ে ধর্ষণ করে। মঙ্গলবার শিশুটিকে আবার একই কায়দায় ধর্ষণ করা হলে শিশুটি তার  মাকে গোপনাঙ্গে ব্যথার হওয়ার বিষয়টি জানায়। এক পর্যায়ে শিশুটি তার মাকে জানায়, জহুর মিয়া তাকে বিভিন্ন সময় প্রলোভন দেখিয়ে  তিনবার ধর্ষণ করেছে। তখন ধর্ষিতার মা বিষয়টি  থানায় অবগত করলে পুলিশ দ্রুত অভিযান চালিয়ে পার্শ¦বর্তী বিশ্বম্ভপুর থানার গামাইতলা নামক স্থান কে ধর্ষক জহুর মিয়া কে গ্রেপ্তার করে।

তাহিরপুর থানার এসআই পাপেল রায় জানান, ঘটনা জানার পর পরই ধর্ষক জহুর মিয়া কে অভিযান চালিয়ে  গ্রেপ্তার করা হয়েছে। বৃহস্পতিবার দুপুরে তাকে কোর্ট হাজতে প্রেরণ করা হয়েছে । তাহিরপুর থানা ওসি মো.  আতিকুর রহমান জানান, ধর্ষক জহুর মিয়াকে পুলিশ কৌশলে দ্রুত গ্রেপ্তার করেছে।  ভিকটিমকে উদ্ধার করে চিকিৎসার জন্য হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

মন্তব্য করুন

Your email address will not be published.