গাইবান্ধার সাঘাটায় শিশু কল্যাণ কেন্দ্রে ঠাঁই না পেয়ে রাস্তায় সন্তান প্রস্রব

সাঘাটা (গাইবান্ধা ) প্রতিনিধি ঃঃ

গাইবান্ধায় মা ও শিশু কল্যাণ কেন্দ্রে ঠাঁই না পাওয়ায় রাস্তায় সন্তান প্রসব করেছেন এক প্রসূতি। বুধবার গভীর রাতে শহরের ডিবি রোডে সন্তান প্রসব করেন তিনি। পরে পুলিশের সহযোগীতায় অসুস্থ অবস্থায় মা ও শিশুকে সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

ভুক্তভোগীর স্বজন ও পুলিশ জানায়, সাঘাটা উপজেলার বোনার পাড়ার গৃহবধু জেমি বেগম প্রসব বেদনা নিয়ে  সিনএনজি যোগে মা ও শিশু কল্যাণ কেন্দ্রে যান। সেখানে কর্তব্যরত চিকিৎসক  উপস্থিত না থাকায় কেন্দ্রের পরিদর্শিকা  সেলিনা আক্তার প্রসূতিকে  ভর্তি না নিয়ে, তাদের অন্যত্র যেতে বলেন। নিরুপায় প্রসূতির স্বজনরা আকুতি-মিনতি করলেও কেন্দ্রে থাকা পরিদর্শিকাসহ স্বাস্থ্য কর্মী ও আয়ারা প্রসূতিসহ তার স্বজনদের মারধর করে তাড়িয়ে দেয়। বিতারিত হয়ে পরে শহরের ডিবি রোডের পরিত্যাক্ত ঘরে  মেয়ে সন্তান প্রসব করেন ঐ প্রসূতি মা। পরে এলাকাবাসী ও পুলিশের সহযোগীতায় অসুস্থ্য অবস্থায় মা ও শিশুকে গাইবান্ধা সদর হাসপাতালে ভতি করা হয়।
গাইবান্ধা সদর থানার ওসি খান মোহাম্মদ শাহরিয়ার বলেন, ৯৯৯ থেকে ফোন পেয়ে তারা গভীর রাতে প্রসূতিকে উদ্ধার করে হাসপাতালে ভর্তি করেছেন । তার যাবতীয় সেবার ব্যবস্থার জন্য প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহন করা হয়েছে।

উল্লেখ্য, গত ৬ই এপ্রিল সদর উপজেলার লক্ষীপুর ইউনিয়নের  গোবিন্দপুর গ্রামের প্রসূতি মিষ্টি আকতারকে মা ও শিশু কল্যান কেন্দ্র থেকে তাড়িয়ে দেন, কেন্দ্রের সিনিয়র স্বাস্থ্য কর্মী তৌহিদা বেগম।   সেই প্রসূতি মা কেন্দ্রের কয়েক’শ গজ দুরেই অটো রিক্সা ভ্যানের মধ্যে সন্তান প্রসব করেন।

মন্তব্য করুন

Your email address will not be published.