খাগড়াছড়ির গুইমারার ধর্ষণ মামলার আসামি বনি অবশেষে গ্রেফতার

গুইমারা (খাগড়াছড়ি) প্রতিনিধি ঃঃ

খাগড়াছড়ি পার্বত্য জেলার অবশেষে আটক হলো অত্র জেলাধীন গুইমারা উপজেলার আলোচিত ধর্ষণ মামলার আসামি ধর্ষক শ্যাম প্রসাদ বনিক। আটককৃত শ্যাম প্রসাদ বনিক’কে প্রাথমিক ব্যাপক জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়। শেষে বৃহস্পতিবার দুপুরে বিজ্ঞ জুডিশিয়াল ম্যাজিষ্ট্রেড আদালতে হাজির করা হয়েছে। এসময় জিজ্ঞাসাবাদের জন্য পুলিশ ৮দিনের রিমান্ড চেয়েছে।

জানা গেছে ধর্ষণ মামলার আসামী শ্যাম প্রসাদ বনিককে আধুনিক তথ্য প্রযুক্তি ব্যাবহার করে গতকাল বুধবার রাত ২টায় রামগড় সার্কেলের সহকারী পুলিশ সুপার সৈয়দ মো: ফরহাদ হোসেনের নির্দেশনায় ও সহযোগিতায় গুইমারা থানা এসআই আল আমিনের নেতৃত্বে অভিযান চালিয়ে হাটহাজারী উপজেলার কাটিরহাট থেকে গ্রেফতার করে। গ্রেফতারকৃত শ্যাম প্রসাদ বনিক’কে প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদ শেষে বৃহস্পতিবার দুপুরে আদালতে হাজির করা হয়েছে। এসময় জিজ্ঞাসাবাদের জন্য ৮দিনের রিমান্ড চেয়েছে বলে জানিয়েছেন গুইমারা থানার ওসি(তদন্ত) মো: শফিকুল ইসলাম। গুইমারা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো: মিজানুর রহমান ঘটনার সত্যতা স্বীকার করেছেন। আসাসীকে তথ্য প্রযুক্তি ব্যবহারে বুধবার আটকের পর বৃহষ্পতিবার বিজ্ঞ জুডিশিয়াল ম্যাজিষ্ট্রেড আদালতের মাধ্যমে জেলা কারাগারে প্রেরন করা হয়েছে। ধর্ষক আটক হওয়ায় মামলার বাদী জাহাংগীর আলম সন্তোষ প্রকাশ করে বলেছেন, ধর্ষকের সহযোগী তার সাবেক স্ত্রী শাহীদা বেগমকে এ ঘটনায় আটক করা উচিত। তার কারনেই অবুঝ শিশু ধর্ষিত হয়েছে তাই তাকেসহ মামলায় অভিযুক্ত করে বিচার করা হোক, তিনি দোষীদের কঠিন বিচার দেখতে চান।

উল্লেখ্য যে গত ২৭শে জুলাই সন্তানের ধর্ষনের বিচার পেতে গুইমারা থানায় একটি অভিযোগ দায়ের করেন ধর্ষিত শিশুটির পিতা মো: জাহাংগীর আলম। এত পুলিশ নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইন ২০০০সালের ৯(১) ও সংশোধিত ২০০৩ধারায় মামলা রেকর্ড করেন। যার মামলা নং-১ তারিখ ২৭/০৭/২০২০ ইং।

মন্তব্য করুন

Your email address will not be published.